মহাকাশ স্টেশনের পথে মাঝরাস্তায় বন্ধ হয়ে গেল রকেট, প্রাণে বাঁচলেন মহাকাশচারীরা


সয়ুজে চড়ে আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনের উদ্দেশে রওনা দিয়েছিলেন এক মার্কিন ও রুশ মহাকাশচারী। উত্ক্ষেপণের প্রথম পর্ব ঠিক মতো মিটলেও বিপত্তি বাধে তার পরেই। কাজ করেনি রকেটের দ্বিতীয় অংশ। গোলমাল বুঝে রকেটের জরুরি ব্যবস্থা চালু করেন মহাকাশচারীরা।

মাঝরাস্তায় বন্ধ হয়ে গেল রকেট। সয়ুজ মহাকাশযানে চড়ে আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনে যাওয়ার পথে বরাতজোরে প্রাণে রক্ষা পেলেন মহাকাশচারীরা। বৃহস্পতিবার কাজাখস্তানের বইখানুর কসমোড্রম থেকে আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনে যাওয়ার পথে ঘটে এই অঘটন। রুশ মহাকাশ সংস্থা রসকসমসের তৈরি রকেটের প্রথম অংশ ঠিক মতো কাজ করলেও কাজ করেনি তার পরের অংশটি। ফলে জরুরি ব্যবস্থা কাজে লাগিয়ে পৃথিবীতে ফেরত আসেন ২ মহাকাশচারী।

এদিন সয়ুজে চড়ে আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনের উদ্দেশে রওনা দিয়েছিলেন এক মার্কিন ও রুশ মহাকাশচারী। উত্ক্ষেপণের প্রথম পর্ব ঠিক মতো মিটলেও বিপত্তি বাধে তার পরেই। কাজ করেনি রকেটের দ্বিতীয় অংশ। গোলমাল বুঝে রকেটের জরুরি ব্যবস্থা চালু করেন মহাকাশচারীরা। ব্যালেস্টিক মন্দন প্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে মহাকাশযানের গতিমুখ বদলে পৃথিবীতে ফিরে আসেন তাঁরা। বইখানুর থেকে ২০০ কিলোমিটার দূরে মরুভূমিতে অবতরণ করে তাঁদের যান। দুই মহাকাশচারীই অক্ষত রয়েছেন বলে জানিয়েছে রসকসমস।

ক্রেমলিন সূত্রে জানানো হয়েছে, মহাকাশযানের অবতরণস্থল চিহ্নিত করতে ঝাঁপিয়ে পড়েছেন উদ্ধারকারীরা। মহাকাশচারীদের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন সম্ভব হয়েছে। তাঁরা অক্ষত রয়েছেন। তাঁদের উদ্ধার করার চেষ্টা চলছে। হেলিকপ্টার নিয়ে যানটিকে খুঁজছেন উদ্ধারকারীরা।

পরিস্থিতির ওপর কড়া নজর রেখেছে মার্কিন মহাকাশ সংস্থা নাসা-ও। স্পেস শাটল মিশন বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর রুশ মহাকাশযান ব্যবহার করেই আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনে মহাকাশচারী পাঠায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। রুশ – মার্কিন কূটনৈতিক টানাপোড়েনের মধ্যেও দুই দেশের মহাকাশসংস্থার সৌহার্দ্যে ছেদ পড়েনি।

 

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *