Press "Enter" to skip to content

ভারতীয়-মার্কিনদের জন্য ট্রাম্পের হিন্দি ভিডিও

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভারতীয়-বংশোদ্ভূত আমেরিকানদের পক্ষে টানতে রিপাব্লিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প একটি ভিডিও ছেড়েছেন – যাতে তাকে হিন্দিতে দু-চার কথা বলতে দেখা যাচ্ছে।

ভিডিওতে তিনি বলছেন, “আবকি বার ট্রাম্প সরকার” – এবং অনেকেই এর সাথে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি নির্বাচনী প্রচারণার সময় “আবকি বার মোদি সরকার” বলে যে শ্লোগান ব্যবহার করেছিলেন – তার স্পষ্ট মিল দেখতে পেয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের ভারতীয় চ্যানেলগুলোতে এই ভিডিওটি বেশ প্রচার হয়েছে।

মি. ট্রাম্পের উপদেষ্টা শলভ কুমারকে উদ্ধৃত করে বাজফিড বলছে, হিন্দিভাষীদের মনে আবেদন সৃষ্টি করার লক্ষ্য নিয়েই ট্রাম্প এ ভিডিওটি ছেড়েছেন।

_92144847__92110264_a18ec6b9-bd6d-4241-af37-d236208f05d5

তবে মার্কিন-ভারতীয় ভোটাররা ট্রাম্পের এ ভিডিও কিভাবে নিয়েছেন তা নিশ্চিত না হলেও, বিবিসির বিকাশ পান্ডে দিল্লির বাসিন্দাদের সাথে কথা বলে বোঝার চেষ্টা করেছেন সেখানে এই ভিডিওটি সম্পর্কে ভারতের রাজধানীর লোকের কি ধারণা।

তাতে দেখা যাচ্ছে দিল্লির লোকেরা কেউই এটা খুব একটা পছন্দ করেন নি।

শৈলেশ কুমার নামে একজন বলেছেন, ভিডিওটি তার জঘন্য লেগেছে কারণ তার মনে হয়েছে মি. ট্রাম্প শুধু হিন্দুদের উদ্দেশ্য করে কথা বলছেন।

“কিভাবে তিনি ভাবলেন যে ভারত মানেই হিন্দু? তার জানা উচিত যে এখানে বহু ধর্মের লোকের বাস – এখানে মুসলিম, শিখ, খ্রীষ্টান সবাই আছে।” – বলছেন শৈলেশ কুমার।

তিনি আশা প্রকাশ করেন, আমেরিকানদের নিশ্চয়ই এটুকু বুদ্ধি আছে যে তারা এ লোকটিকে ক্ষমতায় বসাবেন না।

_92144849__92112088_dce37e0b-f516-4db4-a598-108615063c47

আনন্দ ভূষণ নামে একজন ডিজাইনার বলছেন, ডোনাল্ড ট্রাম্প বোধ হয় ভারতে হিন্দু জাতীয়রতাবাদী বিজেপির বিজয়ের ফায়দা তুলতে চাইছেন।

তার কথায়, “ট্রাম্প হয়তো কিছু হিন্দু ভারতীয়-আমেরিকানের ভোট পেতে পারেন। কিন্তু বিজেপির জয়ের পর ভারতে কি হয়েছে? সংখ্যালঘুদের বিরুদ্ধে অসহিষ্ণুতা বেড়েছে। মি. ট্রাম্পও সেদিকেই যাচ্ছেন।”

দিল্লিতে আইন পড়েন অপরিমিতা প্রতাপ। তিনি বলছেন, মি. ট্রাম্প ইতিমধ্যেই নির্বাচনে হেরে গেছেন, কোন ভিডিওই তাকে রক্ষা করতে পারবে না।

তার বন্ধু রেমন সিং বলছিলেন, এ ভিডিও দেখে এবং মি. ট্রাম্পের মুখে হিন্দি শুনে তিনি শুধু হেসেছেন।

রেমনের কথায়, “মি. ট্রাম্প মেয়েদের সম্পর্কে যেসব কথা বলেছে তা শুনে আমি বিতৃষ্ণা বোধ করেছি। তিনি ভারতের বন্ধু তো ননই, কারুরই বন্ধু নন।”

কীর্তি কাক্কার নামে আরেকজন বলেন, “আমি ভাবতাম যুক্তরাষ্ট্রএকটা উন্নত দেশ, কিন্তু এই লোকটিকে এতদূর আসতে দেখে আমার তা নিয়ে সন্দেহ হচ্ছে। ট্রাম্পকে বিশ্বাস করা যায় না।”

হিতেশ কুমার নামের আরেকজন বলছেন, মি. ট্রম্প প্রেসিডেন্ট হবার উপযুক্ত ব্যক্তি নন। তিনি জিতলে পৃথিবী আরো অনিরাপদ হয়ে উঠবে। সূত্র: বিবিসি বাংলা

Share Button

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *