সন্ত্রাস দমনে ব্যর্থ মার্কিন গোয়েন্দা, সিনেটে কড়া সমালোচনা

আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলায় মার্কিন গোয়েন্দাদের চরম ব্যর্থতার কঠোর সমালোচনা করলো ইউএস সিনেট কমিটি। বিশেষ করে, অভ্যন্তরীণভাবে তৈরি হওয়া জঙ্গিদের কয়েকজনকে গোয়েন্দারা জিজ্ঞাসাবাদের পরও কীভাবে তারা সন্ত্রাসী হামলায় লিপ্ত হলো-তা নিয়ে ক্ষুব্ধ সিনেট কমিটি।
উল্লেখ্য, ফ্লোরিডার ওরল্যান্ডো, ক্যালিফোর্নিয়ার সানবার্নান্দিনো হতাকাণ্ডের নায়করা ছিলো সন্দেহের তালিকায়। বস্টনে ম্যারাথনে বোমা হামলার ঘটনার পূর্বাভাসও পায়নি গোয়েন্দারা। অথচ এ খাতে বিপুল অর্থ ব্যয় করা হচ্ছে।

সিনেটে ‘সিলেক্ট কমিটি অন ইন্টেলিজেন্স’-এর এ শুনানি অনুষ্ঠিত হয় গত সোমবার। আইএস জঙ্গিরা কীভাবে মদদ দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের সম্ভাব্য জঙ্গিদের-তা নিয়েও বিশেষ আলোচনা হয়। এহেন ঘটনাবলি রোধকল্পে কী করা উচিত-সে কথাও বলেন সদস্যরা। ওকলাহোমার সিনেটর (রিপাবলিকান) জেমস ল্যাঙ্কফোর্ড এ প্রসঙ্গে বলেন, ঘটে যাওয়া সন্ত্রাসী তৎপরতার ওপর ফরেনসিক রিপোর্ট এবং অন্যান্য তথ্য পর্যালোচনার আলোকে এ কমিটি মনে করছে যে, শীর্ষস্থানীয় গোয়েন্দা সংস্থা তার দায়িত্ব যথাযথভাবে পালনে সক্ষম হচ্ছে বলে মনে করার কোন কারণ নেই। যুক্তরাষ্ট্রের মারাত্মক ক্ষতি করতে যারা চেষ্টা চালাচ্ছে, তাদের সাথে আইএস যোগাযোগ কীভাবে ঘটছে-এটি বিস্ময়ের ব্যাপার বৈকি। অথচ এসব তথ্য গোয়েন্দারা উদঘাটন করতে পারছেন না হামলার প্রাক্কালে। কিংবা, কোন কোন ব্যাপারে আগাম আভাস পাওয়া সত্বেও যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ না করায় হামলার ঘটনা ঘটেছে।

শুনানিতে আন্তর্জাতিক মহলের সাথে যুক্তরাষ্ট্রের সন্ত্রাস দমনের প্রক্রিয়াকে আরও জোরালো করা নিয়েও কথা হয় এ সময়। সামনের মাসে এ কমিটির আরেকটি শুনানি হবে এবং তারপরই গোয়েন্দা ব্যর্থতা এবং কী ধরনের প্রক্রিয়া অবলম্বন করা উচিত- সে ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট সুপারিশ পেশ করা হবে সিনেটের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে।সূত্র: বিডি-প্রতিদিন

Share Button

About the Author