Published On: Thu, Jun 30th, 2016

প্রথম কোয়ার্টার ফাইনালে মুখোমুখি পোল্যান্ড-পর্তুগাল

পর্তুগিজরা উয়েফা ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে একবারই ফাইনাল খেলার সুযোগ পেয়েছিল। ২০০৪ সালে। তখন লুইস ফিগোর যুগ ছিল। ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোও একজন তরুণ হিসেবে সেই টুর্নামেন্টে অংশ নিয়েছিলেন। সেবার গ্রিসের কাছে হেরে স্বপ্ন ভঙ্গ হয়েছিল পর্তুগিজদের। এর আগে-পরে কখনোই ইউরো কাপের ফাইনাল খেলা হয়নি পর্তুগালের। এবার ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো দায়িত্ব নিয়েছেন, পর্তুগালকে শিরোপা উপহার দেওয়ার। পারবেন কী রোনালদো! আজ ইউরো কাপের কোয়ার্টার ফাইনালে পোলিশদের মুখোমুখি হচ্ছেন রোনালদোরা। ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত একটায়।

ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর কেবল একটা গোল প্রয়োজন। এরপরই তিনি ইউরো কাপে সর্বোচ্চ গোলদাতা ফরাসি কিংবদন্তি মিশেল প্লাতিনির পাশে স্থান নিবেন। ইউরোর মূল পর্বে সর্বোচ্চ ৯ গোল করেছেন প্লাতিনি। ৮ গোল নিয়ে রোনালদো আছেন দ্বিতীয় স্থানে। ২০০৪ সালে ২টি, ২০০৮ সালে ১টি, ২০১২ সালে ৩টি এবং চলতি আসরে ২টি গোল করেছেন রোনালদো। আজই হয়তো প্লাতিনিকে স্পর্শ করবেন এ রিয়াল মাদ্রিদ তারকা। নাকি ছাড়িয়ে যাবেন তিনি প্লাতিনিকে!

রবার্তো লিওয়ান্দোভস্কি পোল্যান্ডকে স্বপ্নে বিভোর করে দিয়েছেন। তার সঙ্গে যোগ হয়েছেন গোলরক্ষক ফ্যাবিয়ানস্কি। দুর্দান্ত সব সেভ করে তাক লাগিয়ে দিচ্ছেন ইউরোপ সেরা স্ট্রাইকারদের। আজ রোনালদোর সবচেয়ে বড় প্রতিপক্ষ হয়ে উঠবেন ফ্যাবিয়ানস্কি। ইউরোর এলিট দলগুলোর মধ্যে পর্তুগালের নাম যোগ হয়েছে অনেক আগেই। আর পোলিশরা তো ২০০৮ থেকে মাত্র এই টুর্নামেন্টটা খেলতে শুরু করেছে। তারপরও বর্তমান পারফরম্যান্সে দলটা অতীতের অধ্যায়গুলো পুনর্বিন্যাস করে চলেছে। যেমন তারা গ্রুপ পর্বে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন জার্মানির সঙ্গে ড্র করেছে। হারিয়েছে ইউক্রেন আর উত্তর আয়ারল্যান্ডকে। এ কারণেই পর্তুগালের জন্য বিপদের কারণ হয়ে উঠতে পারে পোলিশরা। তাছাড়া অতীত পরিসংখ্যানও তো পর্তুগালের পক্ষ সমর্থন করছে না জোরালোভাবে। এর আগে ১০ বার দেখা হয়েছে দুই দলের। পর্তুগিজরা ৪ বার জিতেছে। ৩ বার জিতেছে পোলিশরা। আর ৩ বার ড্র হয়েছে। সর্বশেষ পাঁচবারের মধ্যে দুইবারই জিতেছে পোল্যান্ড। দুইবার হয়েছে ড্র। পর্তুগিজরা জিতেছে মাত্র ১ বার! রোনালদোর জন্য এবারের ইউরো মিশনটা ঠিক সহজ হচ্ছে না!

Share Button

About the Author